Thursday, November 26, 2020
Health Tipsসেক্স টিপস

সন্তান নেয়ার আগের প্রস্তুতি | কিভাবে মিলন করলে সন্তান হয় ?

সন্তান নেয়ার আগের প্রস্তুতি কিভাবে মিলন করলে সন্তান হয়

সন্তান নেয়ার আগের প্রস্তুতি | কিভাবে মিলন করলে সন্তান হয় ?

আমরা আজ আলোচনা করবো সন্তান ধারনের পূর্ব প্রস্তুতি নিয়ে।যারা সন্তান ধারনের কথা ভাবছেন বা Pregnancyr কথা ভাবছ্নে পরিকল্পনা করছেন তাদের সম্বন্ধে বলবো।

আমাদের দেশে দেখা যায় অনেক মেয়েরা আছে এখন তারা কর্মজীবি অথবা অনেক মেয়েরা পড়া শুনা করছে তারা ভাবেছে যে না আমি পড়া শুনাকে আরো আগাতে চাচ্ছি ক্যারিয়ারকে আরো আগাতে চাচ্ছে কর্মক্ষেতে আমি আরো এগিয়ে যেতে চাচ্ছি আমি আরো দেরিতে সন্তান নিতে চায়।কিন্তু প্রতিটা মেয়েরি সন্তান ধারনের উপযুক্ত সময় থাকে এবং কিছু কিছু নিয়ম থাকে যে নিয়ম গুলো ফলো করতে হয় সন্তান ধারণের জন্য এবং  Husband,Wife কিছু রিলেশনের ব্যাপারে কিছু কিছু নিয়ম থাকে যেগুলো ফলো করতে হয় সন্তান ধারণের জন্য যেগুলা অনেক মেয়েরাই যানে না বা Husband (স্বামীরা) ও যানে না।এক নাম্বার কথা হচ্ছে যে যারা সন্তান নেওয়ার কথা ভাবেছেন তাদের বয়স নিয়ে চিন্তা করতে হবে। মেয়েদের সন্তান নেওয়ার উপযুক্ত বয়স হচ্ছে ২০ বছরের পরে ২১ বছর থেকে ২৮-২৯ বছর বা ৩০ বছর আগেই । এই সময়ের মধ্যে বাচ্চা নেওয়ার জন্য চেষ্টা করা উচিত ।

২৫ বছরের মধ্যে হলে সব চেয়ে ভালো হয়।অনেক সময় দেখা যাচ্ছে স্বামী স্ত্রী সব ব্যাপারে ভালো আছে Wife মাসে মাসে মাসিক হচ্ছে বা Husband সব ঠিক আছে কিন্তু সন্তান হচ্ছে না বা তারা কন সুট করছে না।হিস্তীর বা আলাদা হিস্ট্রি শুনলে বুঝা যায় তারা কোন সময় Husband,Wife এক সাথে থাকলে বা সহবাস করলে বাচ্চা হতে পারে এই ব্যাপারে অনেকে জানে বা বুঝে না।মেয়েদের মাসিকের সাইকেল যদি তিনটা ভাগে ভাগ করি একটা হচ্ছে Prolifeity Face একটা Intie face আর একটা হচ্ছে Ticket face ।অথবা যদি দুইটা ভাগে ভাগ করি একটা হচ্ছে Prolifeity Face বা যে সময়ে জরায়ুর ভিতরে গাটা তৈরি হচ্ছে এবং ডিমটা ফোটার জন্য তৈরি হচ্ছে।Ogultary face হচ্ছে যে সময়টা ডিমটা ফুটছে বা ফুটে বের হয়ে আসছে ।

ডিমটা যখন ফুটে বের হয়ে যাচ্ছে তখন কিন্তু সেটা ডিম্বনালি দিয়ে যাবে, জরায়ু দিকে যাবে।আর একটা ফেস হচ্ছে যে ডিম্বস ফুটোর পরে যদি সেই ডিমটা Fatilize হয় বা শুক্রাণু সাথে মিলিত হয় তাহলে সেটা বাচ্চা হবে বা মেয়েরা Pregnenc হবে।আর যদি সেটা না হয় ডিম্বানু ,শুক্রাণুর মিলিতো হওয়ার ব্যাপারটা না থাকে সেক্ষে ডিমটা নষ্ট হয়ে যাবে এবং পরর্বতিতে Secretary Face শুরু হয়ে যাবে এবং জরায়ু ভিতর লেয়ারটা তৈরি হয়ে যাবে শুধু মাসিকের জন্য।তখন কিন্তু নিদিষ্ট সময় পরে কিন্তু মাসিক শুরু হয়ে যাবে।তো সর্বপ্রথম Husband,Wife যানতে হবে যে কোন সময়টা তে ডিম্বস ফুটনেস ফেস দেখা যায় যে মাসিকের যদি ২৮ দিনের সাইকেল হয় যে ২৮ দিন পরপর করো মাসিক হয় বা ৩০ দিন পরপর করোর মাসিক হয় তাহলে ১৪ তম দিনে সাধারণতো ডিমটা ফুটে থাকে।সবকিছু Preparation হয়ে শান্ত ডিমটা বের হয় বের হয় ডিমটা ফুটে সরাসরি ডিম্বনালিতে চলে আসে সেটারো কিছু সময় থাকে।সাধারণতো ডিম্বস ফুটাানোর কোন নিদিষ্ট সময় না কিন্তু একটা ডিম ফুটার পরে বা বের হওয়ার পরে সে ২৪ ঘন্টা সে ট্রাকটে থাকে পারে বা ডিম্বুনালিতে থাকেতে পারে আর একটা শুক্রাণু জরায়ুর ভিতরে যাওয়ার পরে ৭২ ঘন্টা ওখানে থাকতে পারে।সেজন্য ডিম্বাসফোটানোর সময়টা বা ডিমটা ফোটার পরে যে মেছয়িট ডিমটা  বাচ্চা হওয়ার জন্য যে কাজ করবে, সে কিন্তু খুব অল্প সময় থাকছে ২৪ ঘন্টা এবং আমার নিদিষ্ট করে বলতে পরবো না  কিছু কিছু ছিন্টম যদিও আছে যেগুলো থেকে বুঝাযায় যে ডিম ফোটুছে তার পরও আমরা 100% Clear করে বলতে পারবো না কখন ডিমটা ফুটছে এই জন্য ডাঃ সাধারণতো যে পরর্মোশ দিয়ে থাকে যাদের নিয়মিতো মাসিক তাদের মাসিকের ১০-২০ তম দিন অথবা ৯-২১ তম দিন এই সময়টাতে আপনার  Husband,Wife একসাথে থাকবেন বা সহবাস করবেন

সন্তান নেয়ার আগের প্রস্তুতি কিভাবে মিলন করলে সন্তান হয়

এমন কোন নিয়ম নেই যে প্রতিদিন করতে হবে বা একদিন পরপর করতে হবে তবে এই সময় সহবাস করলে তাদের বাচ্চা হয়ে থাকে এবং এরকম বাচ্চা নেওয়ার প্লান করছেন তাদের কে দেখা যায় যে এই টাইমটা বুঝতে না পার জন্য বা ডিম্বস ফুটোনোর সময়টা কখন এটা বুঝতে না পারের জন্যই অনেকে কনসিফ করছে না এবং এই টাইমটা মেন্টন করেই অনেক কাপাল কিন্তু Pregnancy হয়ে যাচ্ছে বা এই সব মেয়েরা Pregnanc হয়ে যাচ্ছে।তো আমি আবার কথা বলে দিচ্ছি যেহেতু এই Pregnanc হওয়ার ব্যাপাটা ডিম্বস ফোটোনর সাথে রিলেটেড সেহেতু মাসিক চক্রে বা মিস্রই সাইকেলের  যাদের নিয়মিত মাসিক হয় তাদের ১০-২০ তম দিন তাদের সহবাস করলে বাচ্চা হওয়ার সম্ভবনা থাকে ।আর একটা হচ্ছে যারা বাচ্চা নেওয়ার জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন ডাঃ সাধারণতো তিন মাস আগে থেকে Folicacid দিয়ে থাকে এটার একটা সুবিধা হচ্ছে যে জন্ম গত ত্রটিকে কমিয়ে দেয়।যারা বাচ্চা নেওয়ার জন্য প্লান করছেন অন্তত পক্ষে তিন মাস আগে আপনার মহিলারা Folic acid টেবলেট টা খাওয়া শুরু করবেন কারণ এটাকে ডঃ রা এই টেবলেটা তিন মাস আগে থেকেই কনসেফ করার পর্ববতিতে বা প্রথম ৩ মাসে Folic acid Continue করে থাকি ।

আর হচ্ছে যারা বাচ্চা নেওয়ার Plan করছেন,যদি কোন Pregnanc হয়ে থাকেন তহলে সেই বাচ্চাটাকে কিন্তু ক্ষতি করতে পারে বা ওই ফেসটাকে ইফেক্ট পড়তে পারে এমন কোন ডিজিট আছে নাকি তার সেটা Dynosis কারা জন্য অবশ্যই আপনার Peoplesection এর জন্য আপনার ডাক্তারের কাছে যাবেন।তারপর কিছু কিছু রোগ আছে যেগুলো ওই বাচ্চার বেডি বা বাচ্চাটাকে ক্ষতি করে পারে যেমন ডাইবেটিস যদি করর ডাইবেটিস থেকে থাকে এবং সেটা যদি তার Pregnancy হওয়ার আগেই থেকে থাকে অনেকে Anda Eknes থাকে তো সেই ক্ষেতে সেই বাচ্চাটাকে কনসেফ্ট কার জন্য প্রথম দুই মাস যার ব্লাড সুগার বেশি বা ডাইবেটিস ব্লাকসেডিস কিন্তু ওই বাচ্চার জন্য ক্ষতি কর।প্রখম এক মাসের মধ্যে যা হতো একটা বাচ্চার দেখবেন ডেভেলপমেন্ট হয় না এবং প্রথম এক সপ্তাহরে মধ্যে ডেভেলপমেন্ট ডাক্তারের ভাষায় যেটা বলা হয় প্রথম ৩র্থ থেকে ৮ষ্টি মধ্যে কিন্তু একটা বাচ্চা Inclusions ডেভেলপমেন্ট ভেতরের যে গঠন করতে হয় সেগুলো তৈরি হয়ে যায়।ওই সময়ের মধ্যে যদি কোন মহিলার ডাইবেটিস থাকে তাহলে কিন্তু ওই বা্চ্চা জন্ম হওয়ার সময় ক্ষতি হওয়ার সম্ভবনা বেশি থাকে ।

যেমন হার্টে এর সমস্যা, চোখের সমস্যা, হাত পা নাই এরকম একটা তুটি হওয়ার সম্ভবনা বেশি থাকে। আরো কিছু হরমেনের সমস্যা করো যদি Thyroid সমস্যা থাকে অথবা করও Enfisoalsindum এরকম সমস্যার জন্য অনেক বাচ্চাটা এবোশন হয়ে যাচ্ছে বা এর কম Problam থাকতে পারে বা হতে পারে।সেজন্য যারা বাচ্চা নেওয়ার প্লান করছেন তাদের প্রকেস্নকনছেপ্ট যে কিছু ‍কিছু ডিজিস বা উচ্ছী করা জন্য ডাক্তারের কাছে এসে কিছু কিছু অনেক কিছু আমরা বেবস করতে পারি না অনেক ডিজিস ডাইস করা যায় না আর এসপেনা কারর কারণে বাস কনসেস নাও করতে পারে সুতরাং কনসেফ্ট করর পর বাচ্চা নষ্ট হয়ে যায়।তবে যেগুলো আমার Drainosis করতে পারবো খুব সহজ পরিক্ষা এবং খুব সহজ হিছট্রি মাধ্যে সেগুলো সহজে Drainosis যায় সেজন্য সব কাপলদরেই উচিত বা মেয়েদের উচিত ডাক্তারের কাছে পরমর্শ চাওয়া।

Source: ডাঃ রুশদানা রহমান তমা
সন্তান নেয়ার আগের প্রস্তুতি গুলো নিয়ে বলেছেন স্বনামধন্য গাইনি ও প্রসূতি বিশেষজ্ঞ ডাঃ রুশদানা রহমান তমা, সহকারী অধ্যাপক, ঢাকা মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল। সিরিয়ালের নাম্বার 01790118855 অথবা 01790118866

হস্থমৈথুন করে বীর্য আটকে রাখলে কি হয়
সঠিক উপায়ে জন্মনিয়ন্ত্রণ পদ্ধতি পুরুষ এবং মহিলাদের জন্য
চুল পড়া বন্ধ করার উপায়
বাসর রাতে ভার্জিন মেয়ে চেনার উপায়
Admin
the authorAdmin
I hope you are enjoying this article. Thanks for visiting this website.